ঢাকা   ২৪ অগাস্ট ২০১৯ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  অবসরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া (বিবিধ)        খুলনা রেলওয়ে থানায় নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ, তদন্তে কমিটি (খুলনা)        গাজীপুরে মশার ২৫ টন ওষুধ আমদানি করা হয়েছে: মেয়র জাহাঙ্গীর (জেলার খবর)        ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে দুই হাজারের বেশি ডেঙ্গু রোগী (জাতীয়)        কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন (জেলার খবর)        ফের হাইকোর্ট ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন (আইন ও বিচার)        আগামী বছর থেকে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করা হবে: কৃষিমন্ত্রী (কৃষি ও প্রকৃতি)        দেশের সব ক্ষেত্রে সমন্বিত উন্নয়ন হচ্ছে: শিল্পমন্ত্রী (জাতীয়)        দুর্নীতির মামলায় নোয়াখালী জেলা জজ আদালতের নাজির গ্রেফতার (জেলার খবর)        খালেদার ২ মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি ১ সেপ্টেম্বর (আইন ও বিচার)      

খুলনায় পাটকল শ্রমিকদের ধর্মঘট

Logo Missing
প্রকাশিত: 07:23:45 pm, 2019-04-03 |  দেখা হয়েছে: 4 বার।

আজ ডেক্সঃ রাষ্ট্রয়াত্ত্ব পাটকল শ্রমিকদের জন্য মজুরি কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন না করায় দ্বিতীয় দিনের মত ধর্মঘট ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছেন খুলনা-যশোর অঞ্চলের নয়টি জুটমিলের শ্রমিকরা। গতকাল বুধবার ভোর ৬টা এসব পাটকলে টানা ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘট শুরু হয়। এছাড়া সকাল ৮টা থেকে চার ঘণ্টা রাজপথ ও রেলপথ অবরোধের কর্মসূচিও পালন করছেন শ্রমিকরা। মজুরি কমিশন, পাটখাতে অর্থ বরাদ্দ ও বদলি শ্রমিকদের স্থায়ীকরণসহ নয় দফা দাবিতে পাটকল শ্রমীক লীগ সিবিএ ননসিবিএ পরিষদ এ কর্মসূচীর ডাক দেয়। গত মঙ্গলবার ভোর থেকে খুলনা-যশোর অঞ্চলের নয় পাটকলের শ্রমিকরা মিলের উৎপাদন বন্ধ রেখে ধর্মঘট ও সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করছেন। আন্দোলনরত শ্রমিকেরা আগের দিনের মত খুলনা-যশোর মহাসড়কের নতুন রাস্তা মোড়ের কবির বটতলা সড়কে টায়ারে আগুন জ¦ালিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন। অবরোধের কারণে কোনো ট্রেনও খুলনা থেকে ছেড়ে যায় নি; ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। খুলনা রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার মানিক চন্দ্র সরকার জানান, শ্রমিকদের বাধার কারণে খুলনা থেকে বেনাপোল গামী কমিউিটার, ঢাকাগামী চিত্রা, রাজশাহীগামী মহানন্দা ও সৈয়দপুরগামী রূপসা ট্রেন ছাড়েনি। সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশন-২০১৫ এর সুপারিশ বাস্তবায়ন, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীদের প্রভিডেন্ড ফান্ড-গ্র্যাচুইটি ও মৃত শ্রমিকের বীমার বকেয়া প্রদান, বরখাস্ত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও স্থায়ী করা, পাট মৌসুমে পাট কেনার বরাদ্দ বাড়ানো, উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মিলগুলোকে পর্যায়ক্রমে বিএমআরই করার দাবি রয়েছে এই নয় দফার মধ্যে। খুলনার রাষ্ট্রয়াত্ত ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, খালিশপুর, দৌলতপুর, স্টার, আলিম, ইস্টার্ন জুট মিল এবং যশোরের কার্পেটিং ও জেজেআই জুট মিলে বর্তমানে ১৩ হাজার ২৭১ জন শ্রমিক কর্মরত রয়েছে।