ঢাকা   বৃহস্পতিবার ২২ অগাস্ট ২০১৯ | ৭ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  অবসরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া (বিবিধ)        খুলনা রেলওয়ে থানায় নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ, তদন্তে কমিটি (খুলনা)        গাজীপুরে মশার ২৫ টন ওষুধ আমদানি করা হয়েছে: মেয়র জাহাঙ্গীর (জেলার খবর)        ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে দুই হাজারের বেশি ডেঙ্গু রোগী (জাতীয়)        কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন (জেলার খবর)        ফের হাইকোর্ট ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন (আইন ও বিচার)        আগামী বছর থেকে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করা হবে: কৃষিমন্ত্রী (কৃষি ও প্রকৃতি)        দেশের সব ক্ষেত্রে সমন্বিত উন্নয়ন হচ্ছে: শিল্পমন্ত্রী (জাতীয়)        দুর্নীতির মামলায় নোয়াখালী জেলা জজ আদালতের নাজির গ্রেফতার (জেলার খবর)        খালেদার ২ মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি ১ সেপ্টেম্বর (আইন ও বিচার)      

শিডিউল বিপর্যয় ঠেকাতে পারছে না রেলওয়ে

Logo Missing
প্রকাশিত: 12:18:35 am, 2019-06-03 |  দেখা হয়েছে: 8 বার।

আজ ডেক্সঃ ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় ঠেকাতে পারছে না বাংলাদেশ রেলওয়ে। ঈদযাত্রার শুরুর দিন থেকেই বেশ কয়েকটি ট্রেন শিডিউল বিপর্যয়ে পড়ে। ঝড়বৃষ্টিসহ নানা করণে নির্ধারিত গন্তব্য থেকে ট্রেনগুলো কমলাপুর স্টেশনে ফিরে আসতে দেরি করে। ফলে কমলাপুর থেকেও বিভিন্ন গন্তব্যে ট্রেন ছাড়তে দেরি হচ্ছে। খুব দ্রুতই শিডিউল বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠা যাবে বলে আশা করছে কর্তৃপক্ষ। তবে এ নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন যাত্রীরা। গতকাল রোববার কমলাপুরে গিয়ে দেখা গেছে, যে ট্রেনটি স্টেশন থেকে সকাল ৬টায় রাজশাহীর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা, সেটি সকাল ৯টার পরেও স্টেশনের ২ নম্বর প্লাটফর্মে দাঁড়িয়ে ছিল। পরে প্রায় সাড়ে ৩ ঘণ্টা দেরিতে সকাল সাড়ে ৯টায় ট্রেনটি রাজশাহীর উদ্দেশে ছেড়ে যায়। অন্যদিকে, চীলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৮টায় কমলাপুর ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও ১১টা ৫০ মিনিটে স্টেশন ত্যাগ করে। এছাড়া, খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস সকাল ৬টা ২০ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলেও তা ছেড়েছে সকাল ৮টায়। গত ২৪ মে যারা দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষার পর কাক্সিক্ষত টিকিট হাতে পেয়েছিলেন, ঘরমুখো সেসব মানুষ গতকাল রোববার সকালে পরিবার নিয়ে কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যাচ্ছেন ঈদ উদযাপন করতে। ট্রেনের এই বিলম্বের কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন যাত্রীরা। গত ২৪ মে ১৪ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে আজকের (২ জুন) টিকিট কিনেছিলেন সাজেদা বেগম। তিনি বলেন, ‘এত কষ্ট করে টিকিট কেনার পর যাত্রার সময়ও যদি ভোগান্তি পোহাতে হয়, এটা দুঃখজনক। কর্তৃপক্ষ আন্তরিক হলে এমন হতো না।’ এ বিষয়ে কমলাপুর স্টেশনের ম্যানেজার আমিনুল হক বলেন, ‘যে ট্রেনগুলো দেরিতে এসে কমলাপুরে পৌঁছেছে, সেগুলো ছাড়তে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। তবে বেশিরভাগ ট্রেনই যথাসময়ে ছেড়ে গেছে। আমরা চেষ্টা করছি, সব ট্রেন যেন যথাসময়ে ছেড়ে যেতে পারে। সব মিলিয়ে যাত্রীদের ভোগান্তি নিরসনে সার্বিক সহযোগিতার চেষ্টা করছি আমরা।’