ঢাকা   ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৫ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  বিজয় দিবসে যান চলাচলে ডিএমপির নির্দেশনা (জাতীয়)        ড. কামালের আচরণ ষড়যন্ত্রের একটি অংশ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (রাজনীতি)        নির্বাচনী প্রচারণায় বুধবার সিলেট যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী (রাজনীতি)        লালমনিরহাট সীমান্তে রাবার বুলেটে ৪ বাংলাদেশি আহত, বিএসএফের দুঃখ প্রকাশ (জেলার খবর)         ভাষাসৈনিক বিমল রায় চৌধুরী আর নেই (জাতীয়)         বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধ (জাতীয়)        আওয়ামী লীগের ইশতেহার প্রকাশ মঙ্গলবার (রাজনীতি)         সন্ত্রাস করলে কোনো দলই ছাড় পাবে না: ইসি রফিকুল (জাতীয়)        স্বরূপে ফিরতে পারেননি ড. কামাল: ওবায়দুল কাদের (রাজনীতি)        শেষ পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে থাকব: ফখরুল (রাজনীতি)      

ইসলামপুরে এমপি বনাম এমপি

Logo Missing
প্রকাশিত: 01:50:59 am, 2018-09-27 |  দেখা হয়েছে: 46 বার।

মোহাম্মদ আলী
মনোনয়ন যুদ্ধে নেমেছে এক আসনের দুই এমপি। একজনের ঐতিহ্য পূণরুদ্ধার লড়াই আরেকজনের অস্তিত্ব রক্ষা। মিছিল মিটিং, প্রচার প্রচারণা, শো-ডাউন এ যুদ্ধের হাতিয়ার। এই  যুদ্ধে দুই সেনাপতির সাথে অংশ নিতে গিয়ে বিভক্ত হয়ে পরেছেন, দল ও সাধারণ ভোটাররা।
কয়েক মাস যাবত জামালপুর-২ আসন, ইসলামপুরের এমপি ফরিদুল হক খান দুলাল ও সংরক্ষিত আসনের এমপি মাহজাবিন খালিদ বেবীর  মাঝে মনোনয়ন যুদ্ধ  চলে আসছে।
জানা যায়, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়ন প্রাপ্তীকে কেন্দ্র করে জামালপুর-২ আসন ইসলামপুর থেকে ২বার নির্বাচিত এমপি, ফরিদুল হক খান দুলাল ও ৫বারের এমপি ও সাবেক ভূমি প্রতিমন্ত্রী রাশেদ মোশারফের ভাতিজি, মহান মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার খালেদ মোশারফের মেয়ে, বর্তমান সংসদের সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি, মাহজাবিন খালেদ বেবী মাঝে নিরস্ত্র যুদ্ধ চলছে।
কয়েক দিন আগে এ যুদ্ধ আড়ালে আবডালে হলেও এখন প্রকাশ্য রণাঙ্গনে অবতীর্ণ হয়েছেন তারা। চলছে মিছিল মিটিং, আলোচনা সমালোচনা, অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ। উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের আনাচে কানাচে ঘুরে ঘুরে উভয়ই জনগণকে বুঝাতে চাইছেন তিনি প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন, মনোনয়ন তিনিই পাবেন। তাদের এ প্রকাশ্য মনোনয়ন যুদ্ধে অংশ নিতে গিয়ে বিভক্ত হয়ে পরেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এ আসনের ভোটাররা।
এব্যাপারে স্থানীয় একজন সাংবাদিক জানান, এবারের সংসদ নির্বাচন ইসলামপুর আসনের মনোনয়ন নিয়ে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির মধ্যে সমঝোতায় সম্ভাবনা রয়েছে। এমনও হতে পারে এ আসনটি আওয়ামী লীগকে ছেড়ে দিতে হতে পারে। এ বিষয়টিতে দুই এমপিই অবগত রয়েছেন। তারপরেও ঐতিহ্য অস্তিত্ব রক্ষার প্রতিযোগীতায় নেমেছেন তারা।
এ ব্যাপারে জনৈক ইউপি চেয়ারম্যান, বীরমুক্তিযোদ্ধা জানান, স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ গড়ার পিছনে বেবীর পরিবারের অবদান রয়েছে এটা অনস্বিকার্য, কিন্তু রাজনীতি বেবী যথার্থই শিশু। অপরদিকে দীর্ঘদিন অবহেলায় পড়ে থাকা ইসলামপুরকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে গেছেন দুলাল। এ ধারা অব্যাহত রাখতে দুলালের বিকল্প নেই। তবে, কোনটি প্রাধান্য পাবে উন্নয়ন না ঐতিহ্য? এটি দলীয় সিদ্ধান্তের ব্যাপার।
 দুই এমপির এ মনোনয়ন যুদ্ধে দেখে সাধারন মানুষ, যারা সরাসরি রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত নন তারা মনে করেন, ক্ষমতাকে যারা বার বার কুক্ষিগত করে রাখতে চায় বা পারিবারিক সম্পদ মনে করে তাদের হাতে না দিয়ে যিনি এটিকে তার উপর ৫বছরের জন্য অর্পিত পবিত্র দায়িত্ব মনে করে কাজ করবে এমন লোকের হাতে অর্পণ করা উচিৎ।

Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!