ঢাকা   ২৪ অগাস্ট ২০১৯ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  অবসরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া (বিবিধ)        খুলনা রেলওয়ে থানায় নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ, তদন্তে কমিটি (খুলনা)        গাজীপুরে মশার ২৫ টন ওষুধ আমদানি করা হয়েছে: মেয়র জাহাঙ্গীর (জেলার খবর)        ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে দুই হাজারের বেশি ডেঙ্গু রোগী (জাতীয়)        কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন (জেলার খবর)        ফের হাইকোর্ট ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন (আইন ও বিচার)        আগামী বছর থেকে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করা হবে: কৃষিমন্ত্রী (কৃষি ও প্রকৃতি)        দেশের সব ক্ষেত্রে সমন্বিত উন্নয়ন হচ্ছে: শিল্পমন্ত্রী (জাতীয়)        দুর্নীতির মামলায় নোয়াখালী জেলা জজ আদালতের নাজির গ্রেফতার (জেলার খবর)        খালেদার ২ মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি ১ সেপ্টেম্বর (আইন ও বিচার)      

ঈদের আগে-পরে ৬ দিন মহাসড়কে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান চলবে না: সেতুমন্ত্রী

Logo Missing
প্রকাশিত: 11:16:42 pm, 2019-07-22 |  দেখা হয়েছে: 2 বার।

আজ ডেক্সঃ আসন্ন ঈদুল আজহায় মহাসড়কে চাপ কমাতে ঈদের আগের তিন দিন ও পরের তিনদিন ট্রাক-লরি-কাভার্ডভ্যানসহ ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া ঈদের আগে সাতদিন ও পরের তিনদিন সিএনজি স্টেশন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকার কথাও জানান তিনি। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে ঈদে সড়ক বিভাগের প্রস্তুতি ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে একথা জানান মন্ত্রী। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রস্তুতি, মহাসড়কের অবস্থা ভালো, আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে ভালো। সড়কের কারণে যানজটের কারণ সৃষ্টি হবে না। দেশের বন্যা কবলিত এলাকার সড়কগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেগুলো জরুরি ভিত্তিতে মেরামত করা হচ্ছে। তবে মহাসড়কগুলোতে কোথাও সমস্যা সৃষ্টি হওয়ার কোনো কারণ নেই। এভরি হাইওয়েজ ইন গুড সেইফ, রাইট অ্যাট দ্য মোমেন্ট। সামনে ভালো থাকবে, এটাই আমরা আশা করছি। ওবায়দুল কাদের বলেন, ঈদুল আজহাতে যত্রতত্র পশুর হাট বসানোর কারণে রাস্তায় সমস্যা হয়। সেটা করা যাবে না, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হয়েছে। হাইওয়ের পাশে যেন পশুর হাট না বসে, রাস্তার ওপর ও রাস্তার আশেপাশে। ঢাকা সিটিতেও সিটি করপোরেশন পশুরহাট বসানোর ব্যাপারে যাতে শৃঙ্খলার মধ্যে থাকে, জনদুর্ভোগ না হয়, সে ব্যাপারে তাদেরকে লক্ষ্য রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে। আশা করি তারা গতবারের মতো এবার বিষয়টি দেখবেন। আর ট্রাক-লরি-কাভার্ড ভ্যান যেগুলো ভারী পরিবহন; ঈদের আগে দিন তিন ও পরের তিনদিন বন্ধ থাকবে। তবে গার্মেন্টস সামগ্রী, জ¦ালানি পরিবহনের ক্ষেত্রে ছাড় রয়েছে। বিজিএমইএ-কে আমরা বলেছি, ঈদুল ফিতরের মতো এবারও যতোটা সম্ভব বিআরটিসির বাস দিয়ে সহযোগিতা করবো। তবে তারা যেন গার্মেন্টস ধাপে ধাপে ছুটি দেওয়া হয়, সে ব্যাপারে তাদের যে দায়িত্ব সেটি যথাযথ পালন করেন। আমরা চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছি। গতবার ৪০টি বাস দেওয়া হয়েছিল। বাস আছে আমরা দিতে প্রস্তুত। বকেয়া আদায়ে বিআরটিসি শ্রমিকদের প্রধান অফিস ঘেরাও প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, এটা সব জায়গায় নয়, কিছুকিছু ক্ষেত্রে হয়েছে। বিআরটিসিতে চেয়ারম্যান পরিবর্তন এসেছে, নতুন চেয়ারম্যান যোগ দিচ্ছে। কিছুকিছু বিশৃঙ্খলার অভিযোগ আছে। যেগুলো মন্ত্রণালয় থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসারেরা দেখছেন। বেতনের ব্যাপারটা লার্জ স্কেলে নেই। দু’একটা জায়গায় আছে সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি এবং ব্যবস্থা নিচ্ছি। তিনি বলেন, ঈদের আগের সাত দিন এবং পরের তিন দিন (মোট ১০ দিন) সিএনজি (ফিলিং) স্টেশন ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়েছে। গ্যাস র‌্যাশনিংয়ের সুবিধার্থে এখন বিকাল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলোতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখছে সংশ্লিষ্ট সরকারি কোম্পানিগুলো। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহার মিথ্যা অভিযোগের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিষয়টার গভীরে আমরা যাচ্ছি, সবকিছু জেনেশুনে সিদ্ধান্ত নিতে চাই। তবে তার বক্তব্য নিয়ে সরকার ‘মশা মারতে কামান দাগাতে চায় না’ বলেও জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের অভিযোগ আলোচনায় আসার পর প্রিয়া সাহা গত রোববার ফেসবুক লাইভে এসে জানান, তিনি একটি গবেষণার ফল নিয়ে কথা বলেছেন। শেখ হাসিনা যখন বিরোধী দলে ছিলেন তার বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে বক্তব্য দিয়েছেন- প্রিয়া সাহার এমন দাবি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার বক্তব্যে তিন কোটি ৭০ লাখ লোক মিসিং- এ কথা তো নাই। শেখ হাসিনা তো এরকম কোনো কথা বলতে পারেন না। এ ধরনের বক্তব্য মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে বলা, এটা আমাদের দেশকে ছোট করা। এটা একটা কাল্পনিক বক্তব্য, উদ্দেশ্য প্রণোদিত বক্তব্য। আমরা রয়ে সয়ে অগ্রসর হচ্ছি, মশা মারতে আমরা কামান দাগাতে চাই না। তিনি বলেন, বিষয়টা নিয়ে আমরা আরো খোঁজ-খবর নিয়েছি, এসব বক্তব্য দেওয়ার পেছনে অন্য কারো হাত আছে কিনা? তিনি যখন দেশে ফিরবেন, তিনি বলেছেন দেশে ফিরবেন। তখন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে যে, তিনি কী উদ্দেশ্যে বলেছেন, কেন বলেছেন, কী ইনফরমেশনের ভিত্তিতে বলেছেন- সেটা তাকে অবশ্যই ব্যাখ্যা করতে হবে। কারণ দেশে একটা কনফিউশন সারা জাতির মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশ থেকে তিন কোটি ৭০ লাখ মাইনরিটি মানুষ মিসিং- এ ধরনের উদ্ভট-কাল্পনিক বক্তব্য উনি কেন দিলেন, কেমন করে দিলেন? আর শেখ হাসিনা মাইনরিটি নিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন সে বক্তব্যের সঙ্গে সংখ্যাতত্ত্বের এই বিষয়টাতে কোনো মিল নেই। দেশে না এলে কী ব্যবস্থা নেবেন- প্রশ্নে কাদের বলেন, উনি নিজেই বলেছেন দেশে ফিরে আসবেন। আর এটা এমন একটা বিষয় নয় যে জোর করে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে হবে, এরকম কিছু আমরা পাইনি। আমরা খতিয়ে দেখছি, সেরকম কিছু হলে পরে দেখা যাবে। সরকার কী ব্যাকফুটে গেল- এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, এটা ব্যাকফুটের কোনো বিষয় না। বিষয়টা হলো কমিউনাল কমিউশন সৃষ্টির বিষয়। কারণ, সে তো সামান্য ব্যক্তি হলেও উড়িয়ে দেওয়া যায় না। উনি এনজিও সংগঠনের নেতৃত্ব দেন, আবার হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের অ্যাপেক্স বডির অর্গানাইজিং সেক্রেটারি। কাজেই এটাকে তো তুচ্ছ জ্ঞান আমরা করতে পারি না। বিষয়টার গভীরে আমরা যাচ্ছি, সবকিছু জেনেশুনে আমরা সিদ্ধান্ত নিতে চাই। একটা বিষয় নিয়ে এক ধরনের বক্তব্য নিয়ে আমরা মশা মারতে কামান দাগাতে চাই না। প্রিয়া সাহার বক্তব্য শেখানো কথা কি-না? এমন প্রশ্নে কাদের বলেন, সেটা আমাদের জানা নেই। কারো প্ররোচণা করেছে কি-না, পেছনে কোনো রাজনৈতিক মতলব আছে কি-না, উস্কানি আছে কি-না, বিষয়টা আমাদের জানতে হবে এবং আমরা বিষয়টা খতিয়ে দেখছি। তার স্বামী দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) চাকরি করেন- এ বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ওঁর স্বামী সরকারি চাকরি করেন। এক পরিবারে স্বামী-স্ত্রী-ছেলে-মেয়ে সবাই এক মতাদর্শী হবেন- এমন তো কোনো কথা নয়। ওঁর স্ত্রী অন্যায় করল, সেটার জন্য স্বামীকে কেন অভিযুক্ত করতে হবে- এটা তো কোনো আইনে নেই। আমরা অহেতুক এ ধরনের বিষয়কে কেন ইনভাইট করতে যাবো? ছেলেধরা গুজবে পাড়া-মহল্লায় যে হত্যাকা-গুলো ঘটছে, এ অমানবিক দৃশ্য সৃষ্টি হচ্ছে- এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আমি কথা বলেছি, তারা বিষয়টির পুনরাবৃত্তি রোধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন, এটাই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাকে জানিয়েছেন। দলীয় নেতাকর্মীরা জড়িত থাকলে কী নির্দেশনা? জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলীয় নেতা-কর্মীদের কেউ যদি জড়িত থাকে তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে আমরা আপোষহীন। সবার ক্ষেত্রে একই রকমের আইন প্রযোজ্য হবে, একই রকমের ব্যবস্থা প্রযোজ্য হবে, দলীয় লোকের জন্য আলাদা কোনো ব্যবস্থা শেখ হাসিনার সরকার কখনও করেনি, এখনও করবে না, ভবিষতেও না।