ঢাকা   মঙ্গলবার ০৭ জুলাই ২০২০ | ২৩ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  করোনা মোকাবিলা করেই উন্নয়ন কর্মকান্ড এগিয়ে নিতে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী (জাতীয়)        করোনায় হাজার হাজার মামলার তদন্তে স্থবিরতা বিরাজ করছে (জাতীয়)        ভারতে একদিনেই করোনা আক্রান্ত প্রায় ২৫ হাজার (আন্তর্জাতিক)        লাদাখ সীমান্তে ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ছে মিলিটারি হেলিকপ্টার-যুদ্ধবিমান (আন্তর্জাতিক)        চীনের সঙ্গে ৯০০ কোটি রুপির ব্যবসা বাতিল হিরোর (আন্তর্জাতিক)        উচ্ছসিত সাকিব আল হাসান (খেলাধুলা)        টাকা দিয়ে তদন্ত থামানো হয়েছে (খেলাধুলা)        মেন্ডিসের গাড়ীর ধাক্কায় নিহত সাইকেল আরোহী (খেলাধুলা)        ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে আফসোস করলেন ব্র্যাড পিট (বিনোদন)        স্বজনপ্রীতি বিতর্কে মুখ খুললেন টাইগার (বিনোদন)      

ফের হাইকোর্ট ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন

Logo Missing
প্রকাশিত: 11:41:35 pm, 2019-08-05 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

আজ ডেক্সঃ মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির জবানবন্দির ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়ানোর ঘটনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সোনাগাজীর সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন হাইকোর্ট আবার জামিন আবেদন করেছেন। হাই কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় গত সপ্তাহে আবেদনটি করা হয়েছে বলে জানান তার আইনজীবী আইনজীবী রানা কাওছার। তিনি বলেন, কাল অথবা পরশু (মঙ্গল বা বুধবার) হাইকোর্টের কোনো একটি অবকাশকালীন বেঞ্চে আবেদনটির শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হবে। আদালত অবকাশ শুনলে শুনানি হবে নইলে অবকাশের পর নিয়মিত বেঞ্চে হয়তো শুনানি হবে। এবার কি যুক্তিতে জামিন চাওয়া হয়েছে জানতে চাইলে রানা বলেন, ওসি মোয়াজ্জেম অসুস্থ। তিনি একজন একজন পুলিশ অফিসার। জামিন পেলে তিনি পালিয়ে যাবেন না এবং বিচার মোকাবেলা করবেন। এসব উল্লেখ করে জামিন চাওয়া হয়েছে। এর আগে গত ৯ জুলাই ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছিল বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাই কোর্ট বেঞ্চ। কারও দায়িত্ব পালনে অবহেলার কারণে কোনো অপরাধ ঘটে থাকলে দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তির দায়ও যে সমান হয়, ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের আইনজীবীকে সে কথা মনে করিয়ে দিয়ে আবেদনটি খারিজ করা হয়েছিল। নুসরাত গত মার্চ মাসে তার মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানীর অভিযোগ করলে সোনাগাজী থানার তৎকালীন ওসি মোয়াজ্জেম তাকে থানায় ডেকে জবানবন্দি নিয়েছিলেন। তার কয়েক দিনের মাথায় মাদ্রাসার ছাদে নিয়ে নুসরাতের গায়ে অগ্নিসংযোগ করা হলে ওসির বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ ওঠে। এ নিয়ে সারাদেশে আলোচনার মধ্যে নুসরাতের সেই জবানবন্দির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। অগ্নিদগ্ধ নুসরাতের মৃত্যুর পর গত ১৫ এপ্রিল ওই ভিডিও ছড়ানোর জন্য ওসি মোয়াজ্জেমকে আসামি করে ঢাকায় বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন আইনজীবী সৈযয়দ সায়েদুল হক সুমন। তদন্ত করে পিবিআই জানায়, নুসরাতের জবানবন্দি ভিডিও করে ওসি মোয়াজ্জেম যে তা ছড়িয়ে দিয়েছেন, তদন্তে সেই প্রমাণ মিলেছে। ওই মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা নিয়ে গত ১৬ জুন গোপনে হাই কোর্টে আগাম জামিনের আবেদন দাখিল করেছিলেন ওসি মোয়াজ্জেম। ওই আবেদনটিও হাই কোর্টের এই বেঞ্চে শুনানির জন্য অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছিল। আদালত পরদিন অর্থাৎ ১৭ জুন আবেদনটি শুনানির জন্য রাখলেও ওই দিনই সুপ্রিম কোর্ট এলাকা থেকে ওসি মোয়াজ্জেমকে গ্রেফতার করে শাহবাগ থানা পুলিশ। ১৭ জুন সাইবার ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হলে ওই দিন আদালত তার জমিন আবেদন খারিজ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়। এরপর থেকে মোয়াজ্জেম হোসেন কারাগারে। সাইবার ট্রাইব্যুনালের সে খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে গত ১ জুলাই অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন ওসি মোয়াজ্জেমের আইনজীবীরা। সেই আবেদনটিতেই ২ জুলাই অনুমতি দেয় আদালত; পরে গত ৯ জুলাই উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ হয় আবেদনটি।