ঢাকা   সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  সারা দেশের ন্যায় জামালপুরেও পিএসসি ও ইবতেদায়ী পরীক্ষা শুরু (জামালপুরের খবর)        শ্রীবরদীর সীমান্তে গরুর সাথে আসছে মাদক! (জেলার খবর)        জামালপুরে ৯ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক- ১ (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে ৫ গ্রাম হেরোইনসহ আটক-১ (জামালপুরের খবর)        চার দিনে মেলায় কর রাজস্ব আয় ১৩৪৬ কোটি টাকা (অর্থনীতি )        ট্রেনের ধাক্কায় নয়, পরিকল্পিত খুনের শিকার শরীফ (অপরাধ)        দুবাই এয়ার শো-তে প্রধানমন্ত্রীর যোগদান (জাতীয়)        প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল বিএনপি (রাজনীতি)        চালের দাম যেন আর না বাড়ে, মিলারদের খাদ্যমন্ত্রী (জাতীয়)        চিপসের প্যাকেটে খেলনা : বিএসটিআইকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ (আইন ও বিচার)      

কলেজছাত্র হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

Logo Missing
প্রকাশিত: 07:52:21 pm, 2019-08-27 |  দেখা হয়েছে: 3 বার।

আজ ডেক্সঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার কলেজ ছাত্র মো. সাইফুল ইসলাম হত্যা মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন দিয়েছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সোয়া দুইটার দিকে জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শফিউল আজম এ দ-াদেশ দেন। দ-প্রাপ্তরা হলেন, মো. দিদারুল আলম, মো. মামুন মিয়া, মো. নাহিদ মিয়া ও মো. আনিসুর রহমান। তাদের সবার বাড়ি আশুগঞ্জ উপজেলার আড়াইসিধা ইউনিয়নের আড়াইসিধা গ্রামে। এছাড়াও তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে অর্থদ- এবং অনাদায়ে আরও দুই মাসের কারাদ- দেয়া হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার এজহারভুক্ত আসামি মো. মোহন মিয়াকে ৭ বছর, মো. শ্যামল মিয়াকে দুই বছরের কারাদ- দেয়া হয় এবং সন্দেহতীত ভাবে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৯ আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন আদালত। আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত ২০১৩ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি আড়াইসিধা ইউনিয়নের মাধুরপাড়া গ্রামের মো. সোহরাব মিয়ার কলেজ পড়ুয়া ছেলে সাইফুল ইসলামকে হত্যার পর স্থানীয় নতুন চকবাজার এলাকা একটি সেতুর পাশে ফেলে রাখা হয়। হত্যাকা-ের পরদিন ৪ ফেব্রুয়ারি নিহতের চাচা ও মো. সেলিম মিয়া বাদী হয়ে ১৬ জনের বিরুদ্ধে আশুগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলার দুই আসামি মৃত্যুবরণ করায় ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা চলমান থাকে। পরবর্তীতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আশুগঞ্জ থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. ফিরোজ মোল্লা ওই বছরের ৪ জুন ১৪ জন আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলার বাদী মো. সেলিম মিয়া সাংবাদিকদের জানান, আদালতের প্রতি আমরা শ্রদ্ধাশীল। তবে বেকসুর খালাস পাওয়া আসামিদের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করার বিষয়ে রায়ের কপি পাওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা জজ আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এ.পি.পি) মো. নজরুল ইসলাম ভূইয়া সাংবাদিকদের জানান, বিজ্ঞ আদালত যে রায় দিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হিসেবে আমরা সন্তুষ্ট।