ঢাকা   মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ২ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  তরঙ্গ মহিলা কল্যাণ সংস্থা,জামালপুরের আয়োজনে পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তিতে সালিশ বিষয়ক প্রশিক্ষন (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে বিচারকদের সাথে আস্থা প্রকল্পের কর্মশালা (জামালপুরের খবর)        বিআরটিসি এসি বাসে কোন অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না-জেলা প্রশাসন (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে বৃক্ষমেলা সমাপ্ত (জামালপুরের খবর)        ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরীর রোগমুক্তি কামনায় মৎস্যজীবী লীগের দোয়া মাহফিল (জামালপুরের খবর)        শেরপুরে শিশু ফোরামের আটটি শাখাকে সম্মাননা প্রদান (জেলার খবর)        শ্রীবরদীতে স্বাক্ষরতা প্রকল্পের উদ্বোধন (জেলার খবর)        রংপুর উপনির্বাচন: সরে দাঁড়ানো ঘোষণা আ. লীগ প্রার্থীর (রাজনীতি)        ছাত্রলীগের কেউ অনিয়ম করলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা: নাহিয়ান (রাজনীতি)        মেট্রোরেলের নিরাপত্তায় পুলিশের আলাদা ইউনিট গঠনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর (জাতীয়)      

ভূমি ব্যবস্থাপনায় দুর্নীতি আগের চেয়ে কমেছে: ভূমিমন্ত্রী

Logo Missing
প্রকাশিত: 07:30:02 pm, 2019-09-11 |  দেখা হয়েছে: 7 বার।

আ.জা.ডেক্সঃ ভূমি ব্যবস্থাপনায় দুর্নীতির বিষয়টা আগের তুলনায় অনেক কমে এসেছে বলে জানিয়েছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। তিনি বলেছেন, ডিজিটালাইজ ও অটোমেশন করলে দুর্নীতি আরো কমবে। যেভাবে কমছে আমি সন্তুষ্ট নই। আমি বারবার বলছি এখানে চাই গুণগত পরিবর্তন। গুণগত পরিবর্তন আনার জন্য যা যা করার প্রয়োজন তা করার চেষ্টা করছি। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ে ঢাকায় নিযুক্ত আমেরিকার রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলারের সাক্ষাৎ শেষে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, মানুষ কিছুটা হলেও এখন সেবা পাচ্ছে। এখন আমরা অনলাইন ডাটাবেজে সাড়ে তিন কোটি খতিয়ান আপলোড করেছি, সেবার জন্য মানুষকে আগে অনেক হয়রানি পোহাতে হতো। এখন আর হয়রানি পোহাতে হয় না। ভূমি অবস্থাপনা, দুর্নীতি নিয়ে টিআইবি একটা রিপোর্ট প্রকাশের বিষয়ে ভূমিমন্ত্রী বলেন, টিআইবির রিপোর্টটা আমার নজরে এসেছে। তাদের রিপোর্টের পুরোটা সমর্থন করতে পারছি না। টিআইবির কথা একেবারেই উড়িয়ে দিচ্ছি না। তবে তারা যেসব সমস্যা তুলে ধরেছেন তারা অনেকগুলো কিন্তু আমরা উন্নয়ন করেছি। এ উন্নয়নটা আমাদের অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, ভূমি অফিসে জটিলতা এবং সমস্যা দীর্ঘদিন ধরে চলছে। আগের চেয়ে বর্তমানে বেশ কিছু উন্নতি হয়েছে। টিআইবি যে রিপোর্টটা প্রকাশ করেছে সেটা কখনকার বেজ ধরে করে সেটা কিন্তু তারা উল্লেখ করেনি। টিআইবি ভূমি রেজিস্ট্রেশনের বিষয়টি উল্লেখ করেছে। রেজিস্ট্রেশন বিভাগের অংশটা নিয়ে সবচেয়ে বেশি সমস্যা হচ্ছে। দুঃখজনকভাবে এখানে একটা ভুল ধারণা রয়েছে। এটা কিন্তু ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীন না, এটা হচ্ছে আইন মন্ত্রণালয়ের অধীন। রেজিস্ট্রেশন বিভাগটা যেহেতু ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীনে নয়, তাই আমি এখানে হাত দিতে পারছি না। মার্কিন দূতের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আমাদের ৫০ বছরের গোল্ডেন জুবলিতে জয়েন্টলি প্রোগ্রাম করবে আমেরিকা। আমাদের আলোচনায় রোহিঙ্গার বিষয়টিও উঠে এসেছে। এ বিষয়ে রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আমেরিকা কাজ করছে। এই ইস্যুতে অন্যান্য দেশও পাশে থাকবে বলে আশা করেন তিনি। ভূমিমন্ত্রী বলেন, আমার মন্ত্রণালয় নিয়ে কথা হয়েছে। এটা একটা কমপ্লেক্স মিনিস্ট্রি, আমিও বলেছি এবং তারাও বলেছেন। ফিল্ড লেভেলে আমরা আরও রিফর্ম করার চেষ্টা করছি সে কথাটাও তাদের জানিয়েছি। মানুষের সেবা কিভাবে বৃদ্ধি করা যায় ডিজিটালাইজেশন এবং অটোমেশনের কথাও তাদের বলেছি।