ঢাকা   ১৫ জুলাই ২০২০ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ইরানে বিয়ে বন্ধ (আন্তর্জাতিক)        খাশোগি হত্যায় প্রধান সন্দেহভাজন যুবরাজ সালমান: জাতিসংঘ কর্মকর্তা (আন্তর্জাতিক)        অবশেষে মাস্ক পরতে দেখা গেল ট্রাম্পকে (আন্তর্জাতিক)        শেরপুরে সুলতানের দাম হাঁকানো হচ্ছে ১৫ লাখ টাকা (জেলার খবর)        গ্রামীন অবকাঠামো উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইর্ষন্বীয় ভূমিকা রাখছেন-মির্জা আজম এমপি (জামালপুরের খবর)        ২০ বছরেও মেরামত হয়নি পৌর এলাকার সড়কটি (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে জেনারেল হাসপাতাল ঘুরে গেলেন সচিব মো: মাহাবুব হোসেন (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে এক গর্ভবতী নারী ও বিজিবি সদস্য সহ ১৭ জনের করোনা শনাক্ত, আক্রান্ত ৭০২ (জামালপুরের খবর)        মাদারগঞ্জে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ক মতবিনিময় সভা (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে বঙ্গবন্ধুর অন্যতম সহচর ছিলেন মতিয়র রহমান তালুকদার (জামালপুরের খবর)      

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে ইবির প্রক্টর অপসারণ

Logo Missing
প্রকাশিত: 07:48:27 pm, 2019-09-23 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

আ.জা.ডেক্সঃ শিক্ষার্থীদের লাগাতার আন্দোলনের মুখে কুষ্টিয়া ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) প্রক্টর মাহবুবর রহমানকে অপসারণ করা হয়েছে। তার জায়গায় নতুন প্রক্টর হিসেবে অধ্যাপক পরেশ চন্দ্র বর্মণকে সাময়িকভাবে প্রক্টরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক শাহীনুর রহমান জানিয়েছেন। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তের পর শিক্ষার্থীরা আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেয়। এর আগে রোবাবার সকাল থেকেই প্রক্টর মাহবুবর রহমানের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ চালিয়ে যায় ছাত্রলীগ কর্মীরা। বেলা দেড়টার দিকে আন্দোলনকারীরা মিছিল নিয়ে প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নেয় এবং প্রধান ফটকে তালা দিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মাহবুবর রহমান গত শনিবার তৃতীয়বারের মত ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর হিসেবে দায়িত্ব নেন। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, এর আগে প্রক্টর থাকাকালে মাহাবুবরের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি, ‘নিয়োগ বাণিজ্য’সহ ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ ওঠে। ওই সময়ও তার বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিল শিক্ষার্থীরা। মাহবুবর রহমান দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে তার অপসারণের দাবি জানান এবং তাকে না সরানো পর্যন্ত লাগাতার আন্দোলনের ঘোষণা দেন। এ বিষয়ে অধ্যাপক মাহবুবরের ভাষ্য- মাদক ও বহিরাগতমুক্ত ক্যাম্পাস গড়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়ায় ছাত্রলীগের বিদ্রোহী পক্ষের নেতাকর্মীরা আমার বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামে।