ঢাকা   বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  জামালপুরে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় পিবিআই এর তদন্ত : আসামীদের পরিবারের সংবাদ সম্মেলন (জামালপুরের খবর)        শ্রীবরদীতে আটশ কৃষক পেল সরিষা বীজ ও সার (জেলার খবর)        জামালপুরের বুদ্ধি প্রতিবন্ধী আছিয়ার বিশেষ অলিম্পিক জয় (জামালপুরের খবর)        শেরপুরে সাবেক ফারর্মাস ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে অনিয়মনের অভিযোগ: ঋণ গ্রহিতাদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান (জেলার খবর)        শেরপুরে তিন দিন যাবত দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ : জন দুর্ভোগ চরমে (জেলার খবর)        সরকার টেনিস খেলাকে যথাযথ গুরুত্ব দিচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী (জাতীয়)        শাস্তির জন্য নয়, নতুন আইন সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে: সেতুমন্ত্রী (জাতীয়)        ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন স্পষ্ট অক্ষরে লিখতে হাইকোর্টের নির্দেশ (আইন ও বিচার)        ৬ লাখ ১১ হাজার মেট্রিকটন লবণ মজুদ রয়েছে: শিল্পমন্ত্রী (জাতীয়)        রাজশাহী মেডিকেলের ভবন থেকে ঝাঁপ দিয়ে রোগীর আত্মহত্যা (দেশজুড়ে)      

আজিজ মোহাম্মদের বাসায় হাইপ্রোফাইলড ক্যাসিনো-বার

Logo Missing
প্রকাশিত: 12:25:43 pm, 2019-10-28 |  দেখা হয়েছে: 4 বার।

ঢাকা ডেক্স :

চলচ্চিত্র প্রযোজক আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের গুলশানের একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে ‘হাইপ্রোফাইলড’ ক্যাসিনো ও বারের সন্ধান পেয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। এ ছাড়া বাসায় বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদের মজুদ পেয়েছে, যা সাধারণত কোনো বারেও মজুদ থাকে না বলে জানিয়েছেন অভিযান সংশ্লিষ্টরা। গতকাল রোববার বিকেল থেকে গুলশান-২ এর ৫৭ নম্বর রোডের ১১/এ নম্বর আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের মালিকানাধীন বাসাটিতে অভিযান শুরু করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। অভিযানে বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, সীসার উপকরণ ও ক্যাসিনোর সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নবীন ও পারভেজ নামে ওই বাসার দুই কর্মচারীকে আটক করা হয়েছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ ফজলুর রহমান বলেন, গুলশান ৫৭ নম্বর রোডের ১১/এ নম্বর বাসাটি আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের নামে। তবে বাসাটির দেখাশোনা করতেন তার ভাই ও বোন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এখানে আমরা বিপুল পরিমাণে বিদেশি মদ, সীসার উপকরণ ও ক্যাসিনো সরঞ্জামাদি জব্দ করেছি।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিদর্শক মোশারফ হোসেন বলেন, আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের গুলশানের বাসার ছাদে ক্যাসিনো পাওয়া গেছে। এখানে ডলারের মাধ্যমে খেলা হতো। সম্প্রতি রাজধানীতে যতগুলো ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়, সেসব জায়গায় দেখা গেছে খেলা হতো টাকা দিয়ে। এখানে এক সেন্ট থেকে শুরু করে ১০০ ডলারের পর্যন্ত কয়েন দিয়ে খেলা হতো। এতেই বোঝা যায় এখানে খুব হাইপ্রোফাইল মানুষজন খেলতে আসতেন। এ ছাড়া ক্যাসিনোটিতে সব ধরনের আধুনিক-সুবিধা রয়েছে এবং সুসজ্জিত। এখানে মদ থেকে শুরু করে সীসা, গাঁজা সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা ছিল।