ঢাকা   মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  জামালপুরে ৬শ অসহায় পরিবারকে বিজিবির ত্রাণ বিতরণ (জামালপুরের খবর)        জামালপুরবাসীর স্বাস্থ্যসেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিতে চাই: আশরাফুল ইসলাম বুলবুল (জামালপুরের খবর)        করোনা দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষের সমস্যা নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন-মির্জা আজম এমপি (জামালপুরের খবর)        গন্তব্যে পৌছবে কি ছানুর নৌকা (জামালপুরের খবর)        বেতন ও বোনাসের টাকায় ঈদ সামগ্রী নিয়ে দেড়শ মধ্যবিত্ত পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন কিরন আলী (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে ভাগ্য বিড়ম্বিত শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ। (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে তরুনদের সহায়তায় দুইশত পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ (জামালপুরের খবর)        ময়মনসিংহে ৩শ দরিদ্র পরিবারের মাঝে সেনা প্রধানের ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন আর্টডক সদস্যরা (ময়মনসিংহ)        করোনা যোদ্ধা নার্সিং সুপারভাইজার শেফালী দাস শ্বাসকষ্টে মারা গেছেন (ময়মনসিংহ)        বিদ্যানদীর মত সকল সামাজিক সংগঠন যদি এই দুর্যোগের সময়ে এগিয়ে আসে তবে সরকারের উপর চাপ অনেকংশে কমে যাবে -মির্জা আজম এমপি (জামালপুরের খবর)      

আজিজ মোহাম্মদের বাসায় হাইপ্রোফাইলড ক্যাসিনো-বার

Logo Missing
প্রকাশিত: 12:25:43 pm, 2019-10-28 |  দেখা হয়েছে: 3 বার।

ঢাকা ডেক্স :

চলচ্চিত্র প্রযোজক আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের গুলশানের একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে ‘হাইপ্রোফাইলড’ ক্যাসিনো ও বারের সন্ধান পেয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। এ ছাড়া বাসায় বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদের মজুদ পেয়েছে, যা সাধারণত কোনো বারেও মজুদ থাকে না বলে জানিয়েছেন অভিযান সংশ্লিষ্টরা। গতকাল রোববার বিকেল থেকে গুলশান-২ এর ৫৭ নম্বর রোডের ১১/এ নম্বর আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের মালিকানাধীন বাসাটিতে অভিযান শুরু করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। অভিযানে বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, সীসার উপকরণ ও ক্যাসিনোর সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নবীন ও পারভেজ নামে ওই বাসার দুই কর্মচারীকে আটক করা হয়েছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ ফজলুর রহমান বলেন, গুলশান ৫৭ নম্বর রোডের ১১/এ নম্বর বাসাটি আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের নামে। তবে বাসাটির দেখাশোনা করতেন তার ভাই ও বোন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এখানে আমরা বিপুল পরিমাণে বিদেশি মদ, সীসার উপকরণ ও ক্যাসিনো সরঞ্জামাদি জব্দ করেছি।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিদর্শক মোশারফ হোসেন বলেন, আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের গুলশানের বাসার ছাদে ক্যাসিনো পাওয়া গেছে। এখানে ডলারের মাধ্যমে খেলা হতো। সম্প্রতি রাজধানীতে যতগুলো ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়, সেসব জায়গায় দেখা গেছে খেলা হতো টাকা দিয়ে। এখানে এক সেন্ট থেকে শুরু করে ১০০ ডলারের পর্যন্ত কয়েন দিয়ে খেলা হতো। এতেই বোঝা যায় এখানে খুব হাইপ্রোফাইল মানুষজন খেলতে আসতেন। এ ছাড়া ক্যাসিনোটিতে সব ধরনের আধুনিক-সুবিধা রয়েছে এবং সুসজ্জিত। এখানে মদ থেকে শুরু করে সীসা, গাঁজা সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা ছিল।