ঢাকা   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  সাইসেন্স ল্যাবরেটরী প্রি-ক্যাডেট এন্ড হাই স্কুলের শুভ উদ্বোধন (জামালপুরের খবর)        সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিনের সাথে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী পরিবারের মত বিনিময় (জামালপুরের খবর)        এক দুয়োরাণীর বিয়ে ঢাক ডোল দিয়ে (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে শিশু কল্যাণ কমিটির সভা (জামালপুরের খবর)        সরিষাবাড়ী বর্ণাঢ্য শুভাযাত্রায় হানাদারমুক্ত দিবস উৎযাপন (জামালপুরের খবর)        মাদারগঞ্জে আমন ধান ক্রয়ে কৃষকের মাঝে লটারী অনুষ্ঠিত (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে বাঁশচড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবন অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে গাড়িতে অগ্নি সংযোগ এর ঘটনায় জড়িতেদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন, স্বারকলিপি প্রদান (জামালপুরের খবর)        দিনাজপুরে একসঙ্গে ৪০ এতিম যুবক-যুবতীর বিয়ে (জেলার খবর)        সরকার আবার আগুন নিয়ে খেলা শুরু করেছে: রিজভী (রাজনীতি)      

চিপসের প্যাকেটে খেলনা : বিএসটিআইকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

Logo Missing
প্রকাশিত: 03:01:53 am, 2019-11-18 |  দেখা হয়েছে: 7 বার।

আ.জা. ডেক্স:

চিপসের প্যাকেটে খেলনা থাকার বিষয়টি তদন্ত করে ১৪ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউটকে (বিএসটিআই) নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে চিপসের প্যাকেটে শিশুদের খেলনা না ঢোকাতে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলোকে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না -তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে। বাণিজ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, এম এম ইস্পাহানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও হেড অব মার্কেটিং এবং ইনগ্রিন লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও হেড অব মার্কেটিংকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। এ সংক্রান্ত এক রিটের শুনানিতে গতকাল রোববার হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে গতকাল রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. মনিরুজ্জামান। আইনজীবী মো. মনিরুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, শিশুরা চিপস খাওয়ার সময় অবচেতন মনে খেলনাটাও খেয়ে ফেলার চেষ্টা করে। অনেক সময় তাদের পেটের মধ্যে খেলনা ঢুকে যায়। এটা খুবই অশনি সংকেত। প্রিভেনশন ইজ বেটার দ্যান কিউর। এ কারণে রিট করেছি। রিট আবেদনে চিপস প্যাকেটের ভেতরে শিশু খেলনা না ঢুকাতে শিশুখাদ্য উৎপাদক প্রতিষ্ঠানগুলোকে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না -এ মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। পাশাপাশি যারা চিপসের প্যাকেটে খেলনাসহ বাজারজাত করেছে সেসব প্যাকেট প্রত্যাহার করতে নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

মনিরুজ্জামান জানান, অ্যাবসেন্ট মাইন্ডে (অন্য মনষ্ক অবস্থায়) বাচ্চারা যখন চিপস খায় তখন খেলনাটি তাদের পেটের মধ্যে ঢুকে যেতে পারে। এটা খুবই অ্যালার্মিং (ভীতিকর)। প্রতিবেশী দেশে এমন ঘটনায় দুটো বাচ্চা মারা গেছে বলে আমরা প্রতিবেদন পেয়েছি। আমরা আশঙ্কা করছি যে, আমাদের দেশের কোনো শিশু চিপসের প্যাকেটে যে প্ল্যাস্টিকের খেলনা থাকে সেটা খাওয়ার পরে হয়তো এমন পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

রিটকারী আইনজীবী আরও বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা এম এম ইস্পাহানির ‘মাইটি চিপস’ ও ইনগ্রিনের ‘ডরে ডরে চিপস’র প্যাকেটে খেলনা পেয়েছি। হয়তো আরও আছে যেগুলো অগোচরে রয়ে গেছে। কোনো কোম্পানি চিপসের প্যাকেটের মধ্যে খেলনা দিয়ে মার্কেটিং করতে না পারে।