ঢাকা   মঙ্গলবার ২৮ জানুয়ারী ২০২০ | ১৫ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  মুজিববর্ষ উপলক্ষে সশস্ত্র বাহিনী বোর্ডের কম্বল বিতরণ (জামালপুরের খবর)        ইসলামপুরে যত্রতত্র ডাক্তারী পরীক্ষা ছাড়াই পশু জবাই : জনস্বাস্থ্য হুমকীর মুখে (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে ছাত্রলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত (জামালপুরের খবর)        দেওয়ানগঞ্জে একই পরিবারে তিন প্রতিবন্ধী (জামালপুরের খবর)        বকশিগঞ্জ গ্রামীণ রাস্তায় শ্রমিকদের সাথে মাটি কাটলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (জামালপুরের খবর)        ছোনটিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া (জামালপুরের খবর)        মামুন স্মৃতি পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে এস এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া (জামালপুরের খবর)        ইসলামপুর কমিউনিটি ক্লিনিকের সেবার মান উন্নয়ন বিষয়ক মুখোমুখি সভা (জামালপুরের খবর)        সাংবাদিক এম শফিকুল ইসলাম ফারুকের পিতা আনিছুর রহমান আর নেই (জামালপুরের খবর)        শরিফপুর ইউনিয়ন পরিষদে সুলার প্যানেল বিতরণ (জামালপুরের খবর)      

দেওয়ানগঞ্জে গ্রাহকদের সাথে ইসলামপুরের পল্লী বিদ্যুৎ ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউলের প্রতারণা

Logo Missing
প্রকাশিত: 03:09:45 am, 2019-11-19 |  দেখা হয়েছে: 1 বার।

ওসমান হারুনী:

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে ফারাজী পাড়া গ্রাহকদের সাথে ইসলামপুরের পল্লী বিদ্যুতের ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউল প্রতারণা করে তিন লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়ে কোন কাজ না করার অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে গ্রাহকদের মাঝে ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে।

প্রতারিত গ্রাহকদের অভিযোগ, উপজেলার চিকাজানী ইউনিয়নের ফরাজী পাড়া ও নয়া গ্রামের প্রতি গ্রাহকদের নিকট বৈদ্যুতিক মিটার ও ওয়ারিং বাবদ সাড়ে পাচঁ হাজার টাকা করে মোট ৮৬টি মিটারের জন্য পনে দুই বছর আগে তিন লক্ষাধিক টাকা গ্রাহকদের ঘরের ওয়ারিং ও মিটার বাবদ হাতিয়ে নেয় ইসলামপুরে পল্লী বিদ্যুতের ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউল ইসলাম। এর পর দীর্ঘদিনেও ওই প্রতারক ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউল ইসলাম গ্রাহকদের ঘর ওয়ারিং না করাসহ মিটার না দেওয়ার নানান তালবাহানা করে আসছে। গ্রাহকদের অভিযোগ,ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউল ইসলাম পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে মিটারের টাকা জমা দেওয়ার কথা বলে টাকা গুলো নিয়ে সে নিজের ব্যাক্তিগত পারিবারিক কাজে ব্যাবহার করেছে। এখন সে আরো টাকা দাবী করছে বলে গ্রাহকরা অভিযোগ করেন।

সোমবার দুপুরে সরেজমিনে ফরাজী পাড়া নয়া গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তার ধার ও গ্রাহকদের বাড়ির পাশে বিদ্যুতের খুটিঁ ও তার ঝুলছে কিন্তু গত পনে দুই বছরেও পায়নি গ্রাহকরা মিটার ও বিদ্যুতের আলো। এ সময় গ্রাহক ফকির আলী, আবু হাসেন,এরশাদ, নূরনবী, জামাল,রহিম উদ্দিনসহ অনেকের সাথে কথা হলে তারা জানান, আমরা শুধু মিটার ওয়ারিং বাবদ টাকা দেয়নি। পল্লীবিদ্যুতের লোকজন ও ঠিকাদাররা এলাকা খাম,তার ও খুটিতে ট্রান্সমিটার লাগানোর সময়ও আমাদের কাছে আনা নেওয়ার ভারা ও টাকা নিয়েছে। এই নিয়ে গ্রামের হত দরিদ্র মানুষ গুলোর আক্ষেপ করে বলেন- আমরা এহন শুনছি মিটার নিতে সাড়ে চারশত টাকা লাগে কিন্তু আমাগো কাছে বিদ্যুতের লোকজন সাড়ে পাচঁ হাজার করে নিয়ে গেছে এহনো আমরা কারেন পাই নাই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউর ইসলামের সাথে মোবাইলে কথা হলে তিনি কারো কাছে টাকা নেইনি বলে উপরোক্ত অভিযোগ অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন জানান, এলাকার গরীব লোকদের নিকট কম টাকা নিয়ে মিটার দেওয়ার কথা তিনি ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউলকে অনেক দিন আগে বলেছিন। এর পর তার সাথে আর কথা হয়নি। এখন শুনছি এখনো গ্রাহকরা মিটার পায়নি।

এ ব্যাপারে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চিকাজানী ইউনিয়নের ফরাজী পাড়া ও নয়া গ্রামের ভোক্তভোগী গ্রাহকরা ও প্রতারক ইলেক্ট্রিশিয়ান জাকিউলের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থাসহ তাদের ঘরে বৈদ্যুতিক আলো জালাতে স্থানীয় প্রশাসনসহ জামালপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতির কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।