ঢাকা   রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ | ২৮ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Image Not Found!

সর্বশেষ সংবাদ

  বন্যা ও করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করেই জেলার চলমান উন্নয়ন প্রকল্পের কাজগুলো বাস্তবায়ন করতে হবে- আবুল কালাম আজাদ (জামালপুরের খবর)        সরিষাবাড়ীতে দুই বৎসর পর হত্যা রহস্য উদঘাটন করল সিআইডি (জামালপুরের খবর)        জামালপুরের বন্যা পরিস্থিতি: নিম্নাঞ্চলে কমছে ধীর গতিতে (জামালপুরের খবর)        অবহেলিত ঘোড়াধাপের রাস্তা-ঘাট সংস্কার করলেন আনছার আলী (জামালপুরের খবর)        জামালপুরে এক শিশু নারায়গঞ্জ ফেরত এক ব্যক্তিসহ ৭ জনের করোনা শনাক্ত , আক্রান্ত ৬৪৯ (জামালপুরের খবর)        শেরপুরে ঐতিহাসিক কাটাখালি যুদ্ধ দিবসে শহীদ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ (জেলার খবর)        শিগগিরই গ্রেফতার হবে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ: র‌্যাব (জাতীয়)        ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনায় সংসদে বিল পাস (জাতীয়)        করোনা নিয়ে প্রতারণা ও অনিয়মের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে: কাদের (জাতীয়)        আরও ৩৪৮৯ জন করোনায় আক্রান্ত, মৃত্যু ৪৬ জনের (জাতীয়)      

করোনা প্রতিরোধে পুলিশের বিশেষ টহল: স্টেশন বাজারে লাঠিচার্জ

Logo Missing
প্রকাশিত: 02:39:24 am, 2020-03-26 |  দেখা হয়েছে: 17 বার।

স্টাফ রিপোর্টার:

জামালপুরে সাপ্তাহিক সকল হাট, পশু হাট, আবাসিক হোটেল, শপিংমল, বানিজ্য কেন্দ্র, রেষ্টুরেন্ট, বিনোদন কেন্দ্র, পার্ক, মেলা, সামাজিক অনুষ্ঠান, ধর্মীয় সমাবেশ, সিনেমা হল, ভ্রাম্যমাণ ফাস্ট ফুড, স্ট্রীট ফুড, সেলুন ও চায়ের দোকানের আড্ডাসহ জনসমাগম হয় এমন সকল কিছু পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বিরাজমান নোভেল করোনা ভাইরাস এর প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

জেলা প্রশাসকের গণবিজ্ঞপ্তি জারির পর থেকে শহরে জনসাধারণের সচেতনতার অংশ হিসেবে জেলা পুলিশের বিশেষ টহল জোরদার করা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে জামালপুর শহরের রাস্তা-ঘাট অনেকটা ফাকা হয়ে আসে। একই সাথে শহরের বেশির ভাগ দোকান-পাট বন্ধ হয়ে যায়। তবে ঔষধ, মাছ-মাংসের দোকানসহ কাঁচা বাজার যথারীতি খোলা রয়েছে।

এদিকে বুধবার (২৫ মার্চ) বেলা ১২টার দিকে পুলিশের টহলে জামালপুর শহরস্থ ষ্টেশন বাজারের দোকানপাট বন্ধ করার লক্ষ্যে পুলিশের লাঠিচার্জে নিউ ইমরান স্টোরের ইদু, ভাই-বোন স্টোরের লিটন আহত হয়। এ সময় ইনসাফ স্টোরের হাসু নামের এক ব্যক্তি স্ট্রোক করেন। তাকে প্রথমে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

স্টেশন বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক অভিযোগ করে বলেন, গণবিজ্ঞপ্তিতে খাদ্যসামগ্রী, ঔষধ, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির সকল দোকানপাট (মাছ-মাংসের দোকানসহ), কাঁচাবাজার খোলা থাকবে জানালেও পুলিশ অতর্কিতভাবে স্টেশন বাজারের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির সকল দোকানপাট, কাঁচাবাজারের দোকানপাট বন্ধে লাঠিচার্জ করে। লাঠিচার্জে ইদু ও লিটন নামের দুই ব্যবসায়ী আহত হয় এবং পুলিশের তান্ডবের চিত্র দেখে হাসু নামের এক ব্যবসায়ী স্ট্রোক করেন। তিনি বলেন, কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির দোকান খোলার ঘোষণা থাকা স্বত্ত্বেও পুলিশ বাজারে এসে অতর্কিতভাবে লাঠিচার্জ করে। পুলিশের এহেন কাজের তীব্র নিন্দা জানান তিনি এবং প্রতিবাদে বুধবার বেলা সাড়ে ১২টা থেকে স্টেশন বাজারের সমস্ত দোকানপাট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তের কথা জানান।